fbpx
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন

শ্লীলতাহানির উদ্দেশে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গির দায়ে ইজিবাইক চালকের কারাদণ্ড

অনলাইন
  • আপডেট টাইমঃ রবিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৩ বার পঠিত

বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে স্কুল যাওয়া আসার পথে শ্লীলতাহানির উদ্দেশে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গির দায়ে ব্যাটারি চালিত এক ইজিবাইক চালককে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

আজ রবিবার দুপুরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম স্কুলে আদালত বসিয়ে ওই চালককে এই দণ্ড দেন। পুলিশ দুপুরেই তাকে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে। দণ্ড পাওয়া আব্দুল কাদের (৩৩) বাগেরহাট সদর উপজেলার ডেমা ইউনিয়নের কাশিমপুর গ্রামের হেকমত শেখের ছেলে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম জানান, ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক চালক আব্দুল কাদের সবার উপস্থিতিতে তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ স্বীকার করে নেয়ায় দণ্ডবিধির ৫০৯ ধারায় তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। দুপুরে তাকে পুলিশের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী জানান, আমরা মেয়েরা যারা স্কুলে পড়ি তাদের রিকশা অথবা ইজিবাইকে চড়ে প্রতিদিন স্কুলে যাওয়া করতে হয়। কিছু চালক আছেন যারা মেয়েদের সাথে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিসহ নানা কটুক্তিমূলক কথাবার্তা বলে থাকেন। এই চালক কয়েকদিন ধরে আমাকে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে লক্ষ্য করে আসছিল। এরমধ্যে দুই দিন তিনি আমাকে তার ইজিবাইকে উঠতে বললে আমি তাতে না ওঠায় তিনি আমাকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি ও উত্যক্ত করেন। আমি বিষয়টি পরিবারকে জানালে পরিবার আমাকে ওই চালককে শনাক্ত করতে উৎসাহ দেয়। আমি পরিবারের উৎসাহের জায়গা থেকে ওই চালককে শনাক্ত করি। তার শাস্তি হওয়ায় আমি খুশি। আমি চেয়েছিলাম ওই লোকটি আমার সাথে যে আচরণ করেছে তা যেন আমার স্কুলে পড়া অন্য সহপাঠি বা শিক্ষার্থীদের বেলায় না ঘটে।

বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক চিত্তরঞ্জন পাল জানান, কয়েকদিন আগে এই ইজিবাইক চালক বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী সুমাইয়াকে স্কুলে আসার পথে দুইদিন অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি ও উত্যক্ত করে। এই বিষয়টি সুমাইয়া তার পরিবারকে জানায়। পরিবার সুমাইয়াকে বলে তুমি যদি স্কুলে যাওয়ার পথে ওই ব্যক্তিকে আবার দেখতে পাও তাহলে আমাদের খবর দেবে। আজ রবিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে প্রতিদিনের মত স্কুলে রওনা দিয়ে আমলাপাড়া এলাকায় পৌঁছে ওই চালককে দেখতে পেয়ে সে তার পরিবারকে জানালে তার পরিবার স্থানীয় কয়েকজনের সহযোগিতায় নিয়ে ইজিবাইক চালককে ধরে স্কুলে নিয়ে আসে। পরে আমরা বিষয়টি প্রশাসনকে জানালে প্রশাসন এসে তাকে দণ্ড দেয়। ভবিষ্যতে স্কুলে পড়ালেখা করা মেয়েদের আর কেউ যাতে রাস্তায় বিরক্ত না করে সেই ক্ষেত্রে এই মেয়েটির সাহসী পদক্ষেপ তার দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

বাগেরহাট অভিভাবক ফোরামের সভাপতি আহাদ উদ্দিন হায়দার জানান, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী যে সাহসী ভূমিকা রেখেছে তা উত্যক্তকারীদের জন্য সতর্ক সংকেত। মেয়েটির সাহসীকতা সত্যিই প্রশংসনীয়। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে মেয়েদের কেউ বিরক্ত করলে সঙ্গে সঙ্গে অভিভাবক অথবা স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানাবে। তাহলে পথে দাঁড়িয়ে থাকা এসব উত্যক্তকারীরা তোমাদের আর উত্যক্ত করার সাহস দেখাবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

এনএএন টিভি লাইভ

%d bloggers like this: