fbpx
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

আইনস্টাইনের পাণ্ডুলিপি রেকর্ড দামে বিক্রি

অনলাইন
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৫ বার পঠিত

থিয়োরি অব রিলেটিভিটি। অর্থাৎ আপেক্ষিকতাবাদ। গোটা দুনিয়াকে বদলে দেওয়া সেই বিখ্যাত তত্ত্বের জনককে সারাবিশ্ব একডাকে চেনে। অ্যালবার্ট আইস্টাইন। এবার সেই থিয়োরির উৎস যে পাণ্ডুলিপি তা বিক্রি হলো অবাক দামে! প্যারিসে নিলামে চড়ানো হয়েছিল বিরল ওই পাণ্ডুলিপিটি।

৫৪ পাতার ওই পাণ্ডুলিপিটি ঘিরে নিলামের শুরু থেকেই কৌতূহল ছিল। মনে করা হচ্ছিল, সাড়ে তিন মিলিয়ন ডলারের মতো দাম উঠতে পারে ওই পাণ্ডুলিপির। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই আন্দাজকে একেবারেই ভুল প্রমাণ করে তা বিক্রি হল ১৩ মিলিয়ন ডলারে! ব্রিটিশ নিলাম সংস্থা ‘ক্রিস্টিজ’ অবশ্য জানিয়েছে, কে ওই পাণ্ডুলিপিটি কিনলেন তা গোপন রাখা হয়েছে।

কতটা গুরুত্বপূর্ণ এই পাণ্ডুলিপি? ক্রিস্টিজ জানাচ্ছে, আইনস্টাইন তার কাজের প্রাথমিক খসড়া আলাদা করে সংরক্ষণ করতেন না। কাজ মিটলেই সেটির অবস্থান হত বাজে কাগজের ঝুড়িতে। এই পাণ্ডুলিপিটিরও সেই অবস্থাই হয়েছিল। পরবর্তী সময়ে মহাকর্ষ সম্পর্কে চিরকালীন ধারণাকে আমূল বদলে দেবে যে তত্ত্ব, তারই আগাম গবেষণার সাক্ষী হিসেবে ওই ৫৪ পাতার পাণ্ডুলিপিটির গুরুত্ব অপরিসীম। 

ক্রিস্টিজের দাবি, বিংশ শতাব্দীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক নথি। আইনস্টাইনের লেখা আর কোনো পাণ্ডুলিপির এতটা দর ওঠেনি এর আগে। 

তবে পাণ্ডুলিপিটির পুরোটাই আইনস্টাইনের নিজের হাতে লেখা নয়। ২৬ পাতা লিখেছিলেন নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী। বাকিটা লিখেছিলেন তার বন্ধু মিশেল বেসো। শেষ পর্যন্ত বেসোর উদ্যোগেই সংরক্ষিত হয়েছিল পাণ্ডুলিপিটি। 

জ্যোতির্পদার্থবিদ এটিন্নে ক্লেইন জানিয়েছেন, এই পাণ্ডুলিপি থেকে পরিষ্কার, রাতারাতি তার জগদ্বিখ্যাত থিয়োরিকে প্রমাণ করতে পারেননি আইনস্টাইন। সেই সত্যের কাছে পৌঁছতে যে দীর্ঘ পরিশ্রম করতে হয়েছিল তারই প্রমাণ ছড়িয়ে রয়েছে ওই পাণ্ডুলিপির পাতায় পাতায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

এনএএন টিভি লাইভ

%d bloggers like this: