fbpx
শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন

করোনায় ৫ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু ভারতে

অনলাইন
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১০ বার পঠিত

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে ভারত। ভয়াবহ আকার ধারন করেছে। রেকর্ড মৃত্যু হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়। এই সময়ে ৬৩০ জন মারা গেছেন মহামারিতে। গত মাসের মধ্যে দেশটিতে সংক্রমণে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড এটি।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারসের বুধবার সকালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে এক লাখ ১৫ হাজারের বেশি শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৬৩১ জন।

এ নিয়ে বিশ্বের দ্বিতীয় জনবহুল দেশটিতে করোনার মোট সংক্রমণ প্রায় এক কোটি ২৮ লাখে দাঁড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন এক লাখ ৬৬ হাজার ২০৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ লাখ আট হাজার ৩২৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ নিয়ে ২৫ কোটি ১৪ লাখ ৪০ হাজার মানুষের নমুনা পরীক্ষা করা হলো।

টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, ২৪ ঘণ্টায় ৬৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা গত চার মাসে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। ৫ নভেম্বর এত বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ইতোমধ্যে প্রথম ঢেউকে ছাড়িয়ে গেছে। গত সোমবার দেশটিতে প্রথমবারের মতো দৈনিক এক লাখ সংক্রমণের খবর আসে।

এদিকে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ আগামী চার সপ্তাহে ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

গত বছরের চেয়ে এবার আরও বেশি মূল্য দেওয়া লাগতে পারে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন বলেছেন, সংক্রমণের পরিসংখ্যান দেখে মনে হচ্ছে লোকজন স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে শিথিলতা দেখাচ্ছে। মাস্ক পরছে না, স্যানিটাইজার ব্যবহার করছে না।
সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ভারত সরকার টিকা নীতি নিয়ে ভাবছে। ১৮ বছর হলেই সবাইকে টিকা দেওয়ার কথা ভাবছে। এতদিন ৪৫ বছরের কম হলে টিকা নেওয়ার সুযোগ ছিল না।

মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে নীতি আয়োগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সদস্য ভি কে পাল বলেন, ‘দেশে মহামারী পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে। সংক্রমণ আরও বাড়ছে। জনসংখ্যার বড় অংশের এখনো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আগামী চার সপ্তাহ সতর্কতা বজায় রাখতে হবে। সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে সচেষ্ট হতে হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

এনএএন টিভি লাইভ

%d bloggers like this: