fbpx
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫১ অপরাহ্ন

আমি ভাবতেই পারিনি আমাকে বার্সেলোনা ছাড়তে হবে: মেসি

অনলাইন
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১
  • ১০ বার পঠিত

শৈশব থেকে যে ক্লাবে বেড়ে ওঠা, যে ক্লাব তাকে বিশ্ব ফুটবলে প্রতিষ্ঠিত করেছে, সেই ক্লাব ছেড়ে চলে যেতে হবে ভেবেছিলেন কি লিওনেল মেসি? উত্তর হলো না। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, কোনওদিন ভাবেননি তাকে বার্সেলোনা ছেড়ে যেতে হবে। ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার পর এই প্রথম অকপট স্বীকারোক্তি মেসি। 

ফুটবলের রাজপুত্র জানান, কোপা আমেরিকার পর ছুটি কাটিয়ে নতুন চুক্তিতে সই করতে ন্যু ক্যাম্পে ফেরেন তিনি। তখনই জানতে পারেন, আর্থিক জটিলতার কারণে তাকে আর রাখা সম্ভব হবে না বার্সার। ক্লাব কর্মকর্তাদের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি তিনি। মন ভেঙে যায় তার। মেসি জানান, আমি ভাবতেই পারিনি আমাকে বার্সেলোনা ছাড়তে হবে। কোপা আমেরিকার পর ছুটি কাটিয়ে আমি নতুন চুক্তিতে সই করতে ফিরেছিলাম। এরপরই সোজা ট্রেনিংয়ে নেমে পড়ার কথা। আমি ভেবেছিলাম সবকিছু তৈরি আছে, শুধু আমার সই করা বাকি। কিন্তু আমি বার্সেলোনা পৌঁছানোর পর জানতে পারি আমাকে আর রাখা সম্ভব হবে না। আমাকে বলা হয় চুক্তি নবীকরণ করার কোনও উপায় নেই। মন ভেঙে গিয়েছিল। স্বাভাবিক ভাবেই মেনে নিতে পারিনি। প্রচণ্ড হতাশ হয়েছিলাম।

শুধু মেসির জন্য নয়, তার বার্সা ছাড়া পুরো পরিবারের জীবনযাত্রায় আমূল পরিবর্তন এনেছিল। রাতারাতি সবকিছু বদলে যায়। এই প্রসঙ্গে মেসি বলেন, বার্সা ছাড়া মানে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়া। দেশ ছাড়তে হবে। পরিবারের রুটিন বদলে যাবে। বাচ্চাদের নতুন স্কুলে ভর্তি করতে হবে। এসব ভাবতেই পারছিলাম না। প্রথমবার আমার জীবনে এরকম ঘটল। অনেক কিছুই আমার মাথায় ঘুরছিল। কিন্তু আমার হাতে আর কোনও বিকল্প ছিল না। তাই মেনে নিতে বাধ্য হয়েছি।

বার্সেলোনা ছাড়তে হবে জানার পর মেসির মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়েছিল। এত কম সময়ের মধ্যে কোথায় যাবেন, কোন ক্লাবে খেলবেন, কতটা মানিয়ে নিতে পারবেন এইসব প্রশ্ন ঘুরছিল তার মাথায়। ঠিক সেই সময় পিএসজি এর প্রস্তাব তাকে নতুন দিশা দেখায়। নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন।

মেসি বলেন, বার্সেলোনা একটি বিবৃতিতে জানিয়ে দেয়, আমি ক্লাব ছাড়ছি। তখন থেকেই আমি দুশ্চিন্তায় পড়ে যাই। ফুটবল চালিয়ে যেতে নতুন ক্লাব খুঁজতে হত। আমার ভাগ্য ভাল যে সেই সময় পিএসজিসহ বেশ কিছু ক্লাব আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে। তারমধ্যে পিএসজি আমাকে পেতে মরিয়া ছিল। হাতে সময় খুব অল্প ছিল, তাই দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। প্রথম দিন থেকেই তারা আমার প্রতি যত্নশীল। আজ এই দলের অঙ্গ হতে পেরে আমি খুশি।

২০১৫ সালের পর আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতেননি মেসি। নেইমার, এমবাপ্পে, ডি মারিয়াদের পাশে পেয়ে এবার সেই আক্ষেপ মেটাতে চান। থাকছে সপ্তমবারের ব্যালন ডি’ওর জেতার হাতছানিও। তবে নিজেকে ফেভারিট ভাবছেন না মেসি। নেইমার, এমবাপ্পেকেও তালিকায় রাখছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল রাজপুত্র।

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...

এনএএন টিভি লাইভ

%d bloggers like this: